ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর আচরণে ‘অপমানিত’ প্রাক্তন প্রেমিকা

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের দিকে আবারো অভিযোগের তীর ছুড়েছেন তার কথিত প্রাক্তন প্রেমিকা জেনিফার আরকিউরি। রোববার ব্রিটেনের এক চ্যানেলে তিনি এই অভিযোগ করেন।
জেনিফার আরকিউরির অভিযোগ, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী তাকে ‘এক রাতের সঙ্গী’ হিসেবে যেভাবে দেখানোর চেষ্টা করছেন, তাতে তিনি ব্যথিত। বরিসের আচরণে খুব ‘অপমানিত’ লাগছে।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর থেকে এই বিতর্কের সূত্রপাত। এদিকে আসছে ডিসেম্বরে ভোটের জন্য এখন থেকেই প্রচারে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন বরিস।

৩৪ বছর বয়সী জেনিফার যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে জেনিফার আরকিউরি নিজেকে একজন উদ্যোক্তা, সাইবার সিকিউরিটি বিশেষজ্ঞ এবং প্রডিউসার হিসেবে উল্লেখ করেছেন। জেনিফার জানান, বিতর্ক শুরু হতেই বরিসের কাছে পরামর্শ চেয়ে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিলেন তিনি। তাতে অবশ্য সাড়া দেননি বরিস।

চ্যানেলটিতে জনসনের উদ্দেশ্যে জেনিফার বলেছেন, আমাকে ‘নিষ্কর্মা’ মনে করে যেভাবে সরিয়ে দিয়েছ তুমি, তাতে আমার খুব খারাপ লাগছে। জানি না কেন এভাবে আমার সঙ্গে কথা বলার সব রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছ। মনে হচ্ছে, আমি যেন ‘কোনো বার থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া এক রাতের সঙ্গী’ ছিলাম তোমার! আসলে তো সেটা ছিলাম না, তুমি অন্তত জানো। কী ভীষণ অপমানিত লাগছে।

বরিস জনসন ২০০৮ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত লন্ডনের মেয়র ছিলেন। জেনিফারের দাবি, বরিসের সঙ্গে তার চার বছরেরও বেশি সময় ধরে সম্পর্ক ছিল। যদিও জেনিফার নিজেই তা মানতে চাননি।

এদিকে মেয়র থাকাকালীন জেনিফারকে এক লাখ ৬৩ হাজার ডলার দেয়া হয়েছিল বলে দাবি করেছেন বরিস। সে সময় তিনটি বিদেশি বাণিজ্য সংস্থায় তাকে সুবিধা দেয়া হয়েছিল বলেও জানিয়েছেন। সূত্র- আনন্দবাজার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here