মার্কিন পণ্যের ওপর পাল্টা শুল্কারোপ চীনের

47 views

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:এবার মার্কিন পণ্যের ওপর পাল্টা শুল্কারোপ করতে যাচ্ছে চীন। আগামী পয়লা জুন থেকে ৬ হাজার কোটি ডলার সমমূল্যের মার্কিন পণ্যে নতুন আরোপিত এ শুল্ক কার্যকর করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

চীনের শুল্ক নীতিমালা কমিশন বিষয়ক মন্ত্রীপরিষদ দ্য স্টেট কাউন্সিল সোমবার এ ঘোষণা দেয়।

এ পদক্ষেপের ফলে দুই দেশের মধ্যে চলমান বাণিজ্যযুদ্ধ আরো তীব্রতা লাভ করবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করা হচ্ছে। – খবর বিবিসি

গেল শুক্রবার ২০ হাজার কোটি ডলার সমমূল্যের চীনা পণ্যে ১৫ শতাংশ শুল্কহার বৃদ্ধি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এরই জবাবে মার্কিন পণ্যে শুল্কহার বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে চীন।

বিবিসি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় পাঁচ হাজার পণ্যে শুল্কের হার বাড়াতে যাচ্ছে চীন। কোনো কোনো পণ্যের ক্ষেত্রে এই হার ৫ শতাংশ থেকে প্রায় ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ানো হবে।

চীনের এই পদক্ষেপের বিষয়ে তাৎক্ষণিক মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এক টুইট বার্তায় তিনি জানিয়েছেন, চীনের এমন প্রতিহিংসা পরায়ণ হওয়া উচিত হবে না। এতে পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে এগোবে।

ট্রাম্প বলেছেন, বহু বছর ধরে চীন যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে নানা সুবিধা নিয়েছে।

শুল্ক হার বাড়ানোর পরে চীনা পণ্যগুলো না নিয়ে অন্য উৎস থেকে সেগুলো কেনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ভোক্তাদের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে চীনের শুল্কারোপের ওই ঘোষণার প্রভাব এরইমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে পড়তে শুরু করেছে। শুল্কারোপের ঘোষণায় যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ারবাজার ওয়াল স্ট্রিটে দরপতনের পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। বিশেষ করে এই ঘোষণায় গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সবচেয়ে বড় ধাক্কা খেয়েছে। ফোর্ড ও জেনারেল মোটরস এর মতো গাড়ি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম ২ শতাংশ নেমে গেছে।

তবে পাল্টাপাল্টি শুল্কারোপ করায় এর খেসারত দিতে হবে উভয় দেশের ব্যবসায়ীদেরই। চীনা পণ্যে শুল্কারোপ করায় চীন থেকে ওইসব পণ্য আমদানি করতে গেলে মার্কিন ব্যবসায়ীদের ২৫ শতাংশ শুল্ক পরিশোধ করতে হবে। ফলস্বরূপ সেসব পণ্যের আমদানি কমবে বা পণ্যের মূল্য অত্যধিক পরিমাণে বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এর আগে ওই শুল্কের পরিমাণ ছিল ১০ শতাংশ। একইভাবে মার্কিন পণ্যে চীনা শুল্কারোপের মূল্যও দিতে হবে চীনা ব্যবসায়ী ও ভোক্তাদের।