পিইসি পরীক্ষায় নকল সরবরাহের অভিযোগে দফতরি জেলখানায় গেল

70

ডেস্ক নিউজ: প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় ফরিদপুরের ভাঙ্গায় মানিকদাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিক্ষার্থীদের মাঝে নকল সরবরাহের অভিযোগে দফতরি মামুন মিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার জেলার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পরীক্ষা হল থেকে তাকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ আদালত পরিচালনা করেন ইউএনও মুকতাদিরুল আহমেদ।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের সুপারিশে ভাঙ্গা থানায় ওই দফতরির বিরুদ্ধে পাবলিক পরীক্ষা অপরাধ আইন ১৯৮০ সালের ৯এর(ক)/১৩ ধারায় মামলা করা হয়।

বৃহস্পতিবার ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা বিষয়ে পরীক্ষা চলছিল মানিকদাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। পরীক্ষা চলার সময় দফতরি মামুন মিয়া দায়িত্বরত অবস্থায় নকল নিয়ে প্রবেশের সময় এক পুলিশ সদস্য নকলসহ আটক করে। বিকেলে দফতরিকে ইউএনও’র কাছে সোপর্দ করা হয়।

এ অ্যাডিশনাল এসপি (ভাঙ্গা সার্কেল) গাজী রবিউল ইসলাম বলেন, মামুনকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় স্কুলের কেন্দ্র সচিব, হেড মিস্ট্রেস নাজমা বেগম ও বাবু ডাক্তারের সহায়তার আরো দু’দিন সে নকল সরবরাহ করেছিল। তবে মামুনের বক্তব্যের কতটুকু সত্য সে বিষয়ে খতিয়ে দেখা হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মুন্সি রুহুল আসলাম বলেন, ঘটনাটি আমি পরে শুনেছি। তবে স্কুলের কেন্দ্র সচিব বা অন্য কোনো শিক্ষক জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার