তথ্য নেই শেরপুর উপজেলা তথ্য বাতায়নে

77

আব্দুস সালাম শাহীন, শেরপুর (বগুড়া)প্রতিনিধি : সাধারণ মানুষের হাতের মুঠোয় তথ্য সেবা দেবার লক্ষ্যে জাতীয় তথ্য বাতায়নের মত উপজেলা পর্যায়ে তথ্য বাতায়ন ( সরকারি ওয়েব সাইট) থাকলেও সংশ্লিষ্টদের উদাসীনতার কারণে তথ্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার সাধারণ মানুষ।
উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের আগ্রহের অভাবে উপজেলা তথ্য বাতায়নে তথ্য না থাকা, তথ্য হালনাগাদ না করা সহ নানাবিধ অসম্পুর্ণতায় সাধারণ মানুষ প্রয়োজনীয় তথ্য ও সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

শেরপুর উপজেলার তথ্য বাতায়ন http://sherpur.bogra.gov.bd/ ভিজিট করে দেখা গেছে উপজেলা পরিষদ,উপজেলা প্রশাসন,বিভিন্ন দপ্তর ও ইউনিয়ন পরিষদের অধিকাংশ ওয়েবসাইট হয় তথ্যশুন্য না হয় পুরাতন তথ্যে ভরা। এতে উপজেলা পর্যায়ের ৩৬টি দপ্তরের লিংক থাকলেও অধিকাংশ লিংকেই কোন তথ্য নেই।

নিয়মানুযায়ী প্রতিটি দপ্তরের ওয়েবসাইটে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নাম,ঠিকানা,মোবাইল নম্বর ও ছবি হালনাগাদ থাকতে হবে। প্রতিটি বিভাগের বিজ্ঞপ্তি, দরপত্র, সিটিজেন চার্টার,বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি,সভার কার্যবিবরণী, উন্নয়ন কর্মকান্ডের গৃহীত কর্মসুচী,এলজিএসপি, দুর্যোগসহ সামাজিক নিরাপত্তায় বরাদ্দের তালিকা, ভাতা ও উপকারভোগীদের তালিকা হালনাগাদ তথ্য আপলোড করতে হবে।
সরকারী কর্মকান্ডে দুর্নীতি কমানো ও স্থানীয় জনগনের কাছে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্য সরকারের উন্নয়নমুলক ও জনস্বার্থমুলক তথ্য ওয়েব সাইটে স্বপ্রণোদিতভাবে প্রকাশের বাধ্যবাধ্যকতা থাকলেও সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর উদাসীনতার কারণে সরকারের সেই মহৎ উদ্দেশ্য ভেস্তে যাচ্ছে।
শেরপুর উপজেলা তথ্য বাতায়নের উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর সাইটে ঢুকে কোন তথ্যই পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের ওয়েবসাইটে পুরাতন জনপ্রতিনিধিদের ছবি ও তথ্য আপলোড করা দেখা গেছে।

অথচ উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদেই তথ্যসেবা কেন্দ্রে দুইজন করে উদ্যোক্তা কর্মরত থাকলেও শুধুমাত্র তদারকির অভাবে স্থানীয় জনগন তথ্য বাতায়নের প্রয়োজনীয় তথ্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
এ ব্যাপারে শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ জানান, আগামীতে উপজেলা বাতায়নের তথ্য হালনাগাদের ব্যবস্থা নেয়া হবে।