পুঠিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা; আটক দুই

306

পুঠিয়া প্রতিনিধিঃ পুঠিয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জরিহর আলীর পরিবারকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা চালিয়েছে তারই প্রতিবেশী আতœীয়রা। ঘটনাটি ঘটেছে গত রোববার দিবাগত রাত্রি অনুমানিক ১০টার সময় উপজেলার ভালুকগাছী ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে। সেসময় জহির আলী ও পরিবারের সদস্যরা বিষয়টি বুঝতে পেরে ঘর থেকে বের হয়ে প্রাণে রক্ষা পায়। জরিহর আলী ঐই গ্রামের জাকের মোল্লার ছেলে। পর দিন জহির আলী পুঠিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুঠিয়া থানা পুলিশ রমকৃষ্ণপুর গ্রামের হোসেন মোল্লা ও তার স্ত্রী জবেদা বেগমকে আটক করেছে। অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, জহিররে প্রতিবেশী হোসেন মোল্লা, শাহিন, নওশাদ আলীসহ আরো বেশ কয়েকজন মিলে রোবার দিবাগত রত্রি ১০টার সময় জহির আলীর গোয়াল ঘরে আগুন দেয়। পরে আগুন জহির আলীর বসত ভিটার দুইটি ঘরে ছড়িয়ে পরে। পরে বিষয়টি জহির আলী টের পেয়ে ঘর থেকে বের হয়ে ডাকচিৎকার দিলে এলাকাবাসী ছুটে এসে আগুন নিভানোর চেষ্টা করে। সেসময় আগুনে ঘরে থানা আসাবাব পত্র নগদ টাকা স্বর্ণের গহনা পুড়ে যায়। এতে প্রায় তার চার লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। পরে পুঠিয়া ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীগণ ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। ভুক্তভোগি জহির আলী বলেন, জমিজমা নিয়ে তাদের সাথে আমাদের অনেক আগে থেকে শত্রুতা চলছিলো। এর জন্য তার আমাদের প্রায়ই মারপিটসহ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারর হুমকি দিয়ে আসছে। আমি তাদের বিরুদ্ধে থানা অভিযোগ দিলে মঙ্গলবার সকালে হোসেন মোল্লাসহ তার স্ত্রী জবেদা বেগম ও তার সহযোগিরা আমার বাড়িতে সামনে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে মারপিটের হুমকি দিতে থাকে। সেসময় পুঠিয়া থানা পুলিশকে খরব দিলে ঘটনা স্থল থেকে পুলিশ হোসেন মোল্লা ও তার স্ত্রী জবেদা বেগমকে আটক করে। এব্যাপারে পুঠিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ রেজাউল ইসলাম জানান, এ ঘাটনায় দুই জনকে আট্ক করা হয়েছে বাকি আসামীদের আটকের চেষ্টা চলছে। #

শেয়ার