আইসোলেশন থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা ৩ জন করোনা আক্রান্ত

0

মাদারীপুর প্রতিনিধি : মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দেয়ায় এক নারীসহ তিনজনকে সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গত ২৭ মার্চ এই তিনজনকে আইসোলেশন ওয়ার্ড থেকে ছাড়পত্র দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদের সংস্পর্শে আসা ৫০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছে প্রশাসন।

এ ঘটনার পর রোববার বিকেলে এ তিনজনের বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দেয়া হয়। এর আগে দুপুর ১টার দিকে তাদের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভার্তি করা হয়। এরপর পুরো উপজেলা রাতেই লকডাউন করে রাস্তায় রাস্তায় ব্যারিকেড দেয়া হয়েছে।

পুলিশ, র‌্যাব, সেনাবাহিনী, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিবচরজুড়ে টহল দিচ্ছে। এর আগে গত ১৮ মার্চ থেকে শিবচর উপজেলার ৪টি এলাকা কনটেইনমেন্ট ঘোষণা করলেও কার্যত উপজেলাজুড়ে অচল রয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, আইসোলেশন ওয়ার্ডে থাকা তিনজন মধ্যে দুজন স্বামী-স্ত্রী। তারা শিবচর উপজেলার পাচ্চর ইউনিয়নের হাজীপুরের বাসিন্দা। অপরজন একই উপজেলার বহেরাতলা ইউনিয়নের ৩২ বছর বয়সী ইতালি প্রবাসী। আইসোলেশন থেকে মুক্ত হওয়ার পর বাড়িতে ফিরলে এ তিনজনসহ ১৬ জনের নমুনা সংগ্রহ শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পক্ষ থেকে আইইডিসিআর এ পাঠালে তাদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ পাওয়া যায়। এরপর দুুপুরে তাদের সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে নেয়া হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. শশাঙ্ক ঘোস বলেন, এ তিনজনের মধ্যে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। তাই তাদের পুনরায় আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি তাদের সংস্পর্শে আসা ৫০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

মাদারীপুরের সির্ভিল সার্জন মো. সফিকুল ইসলাম বলেন, এক নারীসহ তিনজন দুপুরে হাসপাতালে এসেছে। তাদের ভালোভাবে চেকআপ করা হবে। প্রয়োজনে আবারও তাদের নমুনা নেয়া হতে পারে।

ওই তিনজনকে একবার আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তখন তারা সুস্থ ছিল। তাদের কোনো অসুবিধা ছিল না। তখন তাদের টেস্টে নেগেটিভ এসেছিল। তাই ছাড়পত্র দেয়া হয়েছিল। শুনেছি তাদের করোনা পজিটিভ এসেছে। তাই তাদের আবার আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। সেখানে আমাদের করোনা প্রতিরোধের জন্য নিয়োজিত মেডিকেল টিম তাদের চিকিৎসা দিচ্ছে।

সির্ভিল সার্জন কার্যালয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক চিকিৎসক জানায়, ওই তিনজনের মধ্যে একজনের বয়স ৭২ বছর। তাকে নিয়ে কিছুটা শঙ্কা রয়েছে। তবে আইসোলেশনে থাকা বাকি দুজনই মোটামুটি ভালো আছে।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ওয়াহিদুল ইসলাম বলেন, আইইডিসিআর মাদারীপুরের শিবচরকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা দেয়ায় এ উপজেলার লকডাউনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। সকল যানবাহন বন্ধ থাকবে। জনগণকে ঘরে থাকতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here