যশোরে করোনাভাইরাসে নতুন ২২ জন আক্রান্ত

0

স্টাফ রির্পোটার,যশোর: যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্ট্রারের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা শেষে জেলায় নতুন করে ২২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

(যবিপ্রবি) ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা শেষে গত রোববার সকালে জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন এই ফলাফল ঘোষণা করেন। এদিন খুমেক ল্যাব থেকে তিনটি নমুনার সবকয়টি নেগেটিভ ফল এসেছে।

যবিপ্রবির অধ্যাপক ড. তানভীর ইসলাম জানান, যশোর জেলার ৯২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন ২২ জনের করোনা পজিটিভ হয়েছে। এছাড়া মাগুরা জেলার ১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে সাতজনের এবং নড়াইল জেলার ৪৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৯ জনের শরীরে কোভিড-১৯ পজেটিভ হয়েছে। অর্থাৎ ল্যাবে তিনজেলার সর্বমোট ১৫১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৮ জনের নমুনা করোনা পজিটিভ এবং ১০৩ জনের নেগেটিভ ফল এসেছে।

অপরদিকে যশোর জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন জানান, যবিপ্রবি ও খুমেক ল্যাবে গেল ২৪ ঘণ্টায় জেলায় সর্বমোট ৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২২ জনের পজিটিভ এবং ৭৩ জনের নেগেটিভ ফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে খুমেক ল্যাবে তিনটি নমুনা পরীক্ষা করে সবকয়টি নেগেটিভ ফলাফল পাওয়া গেছে।

তিনি আরও জানান, জেলায় আক্রান্তদের মধ্যে ২০ জনের বাড়ি শহর ও সদর উপজেলাতে। এছাড়া ঝিকরগাছা উপজেলায় দুইজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, জেলায় আক্রান্ত ২২ জন হলেন, সদর উপজেলার, খোলাডাঙ্গার মহুয়া সুলতানা (২৩), রামকৃষ্ণপুর গ্রামের জসিম হোসেন (৪২), সদর উপজেলা ঝুমঝুমপুর এলাকার রানী (৪৮), মজনু (৪৫) ও সুব্রত ভদ্র (১৫), যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল স্টাফ কোয়ার্টারের বাসিন্দা আবু সাইয়েদ (৫৪), ধর্মতলা এলাকার হরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী (৫২), ঘোপের আবুল বাশার (৫৫) ও আকরাম হোসেন (৪৫), নওয়াপাড়া রোড এলাকার রোজিনা (৩৫), সতীঘাটা এলাকার জামিলা বেগম (৭০), পুলিশ লাইনের সদস্য খালিক (৬৫), জেলরোড এলাকার বাসিন্দা হাফসা খাতুন (১৫), নীলগঞ্জ সুপারি বাগান এলাকার হাসিনা বেগম (৫৫), পুরাতন কসবা এলাকার রুমা (৩৭) ও আসাদুল (৩৯)। এছাড়া সদরে নমুনা প্রদানকারী মণিরামপুর উপজেলার ডুমুরখালি গ্রামের আনিসুর রহমান (৩৬), নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার বাসিন্দা জাবের হোসাইন (৬০) ও খুলনার মোহাম্মদ-আল-মিরাজ (৩৬)। ঝিকরগাছা উপজেলায় আক্রান্তরা হলেন, সরকারি শিশু পরিবার অফিসে কর্মরত আলামিন ও ছুটিপুর গঙ্গানন্দপুর গ্রামের উম্মে কুলসুম (২৬)। আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউনসহ বিভিন্ন প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এদিকে গত ১০ মার্চ থেকে ০৬ সেপ্টেম্বর বিকাল পর্যন্ত জেলায় সর্বমোট ৩ হাজার ৪৬৭ জনের শরীরে কোভিড-১৯ পজেটিভ সনাক্ত হয়েছে। এ সময় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ১৭১ জন এবং ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here