চৌগাছায় এক ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

0
522

চৌগাছা প্রতিনিধি:২৮ জুলাই ২০১৮,
যশোরের চৌগাছায় নাছরিন খাতুন (১৬) নামে এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার হাকিমপুর ইউনিয়নের বেড় তাহেরপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

নাছরিন খাতুন তাহেরপুর গ্রামের আবদার খাঁর মেয়ে এবং স্থানীয় মদনপুর দাখিল মাদরাসার দশম শ্রেণির ছাত্রী।

তবে পুলিশ আত্মহত্যাকে রহস্যজনক বলে দাবি করছে।

জানাযায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নিজের বেডরুমে সিলিং ফ্যানে ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করে। পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছেন।

এ ব্যাপারে চৌগাছা থানা পুলিশের এসআই ফজর আলী বলেন, সে ধর্ষণের শিকার হতে পারে। সে কারণে অপমানে আত্মহত্যা করেছে বলে লাশের সুরতহাল রিপোর্টে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা যায়।
তিনি আরো বলেন, আত্মহত্যা করলেও শরীরের গোপনাঙ্গে রক্তের চিহ্ন রয়েছে তাই ময়নাতদন্তের পর বিষয়টি পরিষ্কারভাবে জানা যাবে।

এদিকে নাছরিনের দাদা আয়ুব হোসেন খান বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে পড়াশুনা নিয়ে ছোটভাইয়ের সাথে ঝগড়া হয় তার। সে রাগ করে নিজের শোবার ঘরে দরজা দিয়ে অনেক রাত পর্যন্ত পড়াশুনা করে। রাতে তার ঘরে খাবার দেয়া হলেও তা না খেয়ে শুয়ে পড়ে। বিষয়টি খুব সাধারণ হওয়ায় পরিবারের কেউ তেমন গুরুত্ব দেয়নি। কিন্তু সকালে ঘুম থেকে না ওঠায় এবং ডাকাডাকি করে কোনো সাড়া না পাওয়ায় সবার সন্দেহ হয়। দরজা ভেঙ্গে দেখা যায় সে ফ্যানে ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলছে। স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দিলে তারা লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়ে দেয়।

এ ব্যাপারে হাকিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাছুদুল হাসান বলেন, মেয়েটি মদনপুর মাদরাসার ছাত্রী। সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

ধর্ষণের বিষয়ে তিনি বলেন, তার গোপনাঙ্গে রক্তের চিহ্ন রয়েছে, তাই ময়নাতদন্তের পর বিষয়টি পরিষ্কারভাবে জানা যাবে।