টাঙ্গাইলে স্কুল ছাত্রীকে শ্লীনতাহানির প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ, তদন্ত কমিটি গঠন

0
798
টাঙ্গাইলে স্কুল ছাত্রীকে শ্লীনতাহানির প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ, তদন্ত কমিটি গঠন
টাঙ্গাইলে স্কুল ছাত্রীকে শ্লীনতাহানির প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ, তদন্ত কমিটি গঠন

ফরিদ মিয়া, বিশেষ প্রতিনিধি ঃ ২৯ জুলাই ২০১৮
টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ধর্মীয় শিক্ষক কর্তৃক এক স্কুল ছাত্রীকে শ্লীনতাহানির প্রতিবাদে দুই ঘন্টা টাঙ্গাইল- ময়মনসিংহ সড়ক অবরোধ করে রেখে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা।
রোববার দুপুরে ঘাটাইল এসই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঘাটাইল কলেজ মোড় চত্বরে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।
শিক্ষার্থীরা জানায়, ঘাটাইল এসই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর যমুনা শাখার ছাত্রী বৃষ্টি আক্তার। সে উপজেলার ঘাটাইল পৌরসভাধীন চতিলা গ্রামের আফসার আলী খানের মেয়ে। বিদ্যালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক মোঃ এনামুল হক স্থানীয় এম এ হাসান কোচিং সেন্টারেও শিক্ষক। বৃষ্টি স্থানীয় এই কোচিং সেন্টারে এনামুলের তত্বাবধানে পড়ত। শ্লীনতাহানির শিকার ছাত্রীটির অভিযোগ শিক্ষক এনামুল তাকে মাঝে মাঝেই কুপ্রস্তাব দিত। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৫ জুলাই অভিযুক্ত শিক্ষক এনামুল কোচিং এ তাকে একা পেয়ে শ্লীনতাহানি করে। পরে সে বিষয়টি তার বাবা-মাকে জানালে তারা বাবা মা ২৬ জুলাই বিষয়টি স্কুল কর্তপক্ষ সহ গ্রামবাসীকে জানায়।
এরই ধারাবাহিকতায় রোববার দুই ঘন্টা টাঙ্গাইল- ময়মনসিংহ সড়ক অবরোধ করে রেখে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। এ সময় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। অবরোধকারীরা অভিযুক্ত শিক্ষককে বিদ্যালয় থেকে বহিস্কার সহ দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করে। পরে স্থানীয় প্রশাসন ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দৃষ্টান্তমুলক বিচারের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় শিক্ষার্থীরা।
এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বুলবুলি বেগম জানান আমি বিষয়টি জানার পর ২৬ জুলাই ছাত্রীটির বাড়িতে যাই এবং তাদের অভিযোগ দিতে বলি। ছাত্রীটির অভিভাবক গত শনিবার লিখিত অভিয়োগ দিলে শিক্ষক এনামুলক হককে কারন দর্শানোর নোটিশ প্রদান করে তিন দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে এবং তাকে পাঠদান থেকে বিরত রাখা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিলরুবা আহমেদ জানান, বিষয়টি আমি আজই অবগত হয়েছি । বিষয়টি তদন্তের জন্য ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি ৫ কার্য দিবসের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন পেশ করবেন । তদন্ত রিপোর্টের পেক্ষিতে অভিযুক্ত শিক্ষককের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।