টাঙ্গাইলে ৬ বছরে ৪১ টি মানব পাচারের ঘটনা

0
214

 

ফরিদ মিয়া, বিশেষ প্রতিনিধি :

টাঙ্গাইল জেলায় ২০১২-১৮ মার্চ পর্যন্ত ৪১টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে ২৩টির অভিযোগপত্র, ১২ চুড়ান্ত রিপোর্ট আসছে এবং ৬টি তদন্তাধিন রয়েছে। বিশ্ব মানব পাচার প্রতিরোধ দিবস উপলে আলোচনা সভায় এসব তথ্য তুলে ধরেন বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার পরিচালিত মানব পাচার প্রতিরোধ প্রকল্পের টাঙ্গাইল জেলা ইউনিট।

‘আসুন পাচারের শিকার শিশু ও তরুণসহ সকলের পাশে দাঁড়াই, এই শ্লোগানে টাঙ্গাইলে বিশ্ব মানব পাচার প্রতিরোধ দিবস উপলে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে টাঙ্গাইল সাধারণ গ্রন্থাগার মিলনায়তনে এ দিবসের আয়োজন করা হয়।

মানব পাচার তথ্যে আরো বিস্তারিত জানান, টাঙ্গাইল সদর থানায় ১৯টি মামলার মধ্যে ১২টির অভিযোগপত্র আসছে, চুড়ান্ত রিপোর্ট ৪টি এবং ৩টি মামলা তদন্তাধিন রয়েছে। দেলদুয়ার থানায় ১টি মামলা হয়েছে ও তার চুড়ান্ত রিপোর্ট আসছে, এ মামলার বিচার আমলে আসেনি। গোপালপুরে ১টি মামলার মধ্যে তার অভিযোগপত্র আসছে, সে মামলা বিচারাধীন আছে। ঘাটাইলে ২টি মামলার মধ্যে ২টিই তদন্তাধিন আছে। মির্জাপুরে ৪টি মামলার মধ্যে ২টির অভিযোগপত্র আসছে বাকি দুইটির চুড়ান্ত রিপোর্ট আসছে এবং এই দুটি মামলা বিচারাধীন আছে। নাগরপুরে ২টি মামলা হয়েছে এবং ২টিরই চুড়ান্ত রিপোর্ট আসছে। সখীপুরে তিনটি মামলার মধ্যে ২টি মামলার অভিযোগপত্র আসছে এবং ১টি মামলার চুড়ান্ত রিপোর্ট আসছে। কালিহাতীতে ৫টি মামলার মধ্যে ৩টি মামলার অভিযোগপত্র আসছে, ১টি চুড়ান্ত রিপোর্ট আসছে এবং বাকি একটির তদন্তাধিন আছে। ধনবাড়ীতে ২টি মামলার মধ্যে ১টির অভিযোগপত্র এবং ১টির চুড়ান্ত রিপোর্ট আসছে এবং চুড়ান্ত রিপোর্টর মামলা এখন বিচারাধীন আছে। এছাড়া মধুপুর, বাসাইল ও ভুঞাপুরে এ পর্যন্ত কোন মামলা পাওয়া যায়নি। হলেও সেখান থেকে এসব মামলা অনেক সময় সালিশী বৈঠকে মীমাংশা হয়ে যায়।

অনুষ্ঠানে টাঙ্গাইল বাস্থবায়ন সংস্থার সভাপতি অধ্যাপক ড. কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, টাঙ্গাইল সাধারণ গ্রন্থাগারের সহ-সভাপতি খন্দকার নাজিম উদ্দিন, মানব পাচার প্রতিরোধ ইউনিটির প্রোগ্রাম অফিসার এডভোকেট আল রুহি।