মহেশপুরে এক দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী বিরুদ্ধে অভিযোগ,অতপর সাসপেন্ড।

0
789
মহেশপুরে এক দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী বিরুদ্ধে অভিযোগ,অতপর সাসপেন্ড।

মহেশপুর অফিস ঃ ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার খাঁ পুরন্দরপুর ৭ নং-সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী জসিম উদ্দীনের বিরুদ্ধে নানাবিধ অভিযোগে ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ২৯ জুলাই তাকে সাময়িক সাসপেন্ড করা হয়েছে। এঘটায় মহেশপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস থেকে এটিও মোঃ আফজালউর রহমানকে প্রধান করে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে।
৩১ জুলাই এটিও আফজালউর রহমান,এটিও খালেক আব্বাসী,ও এটিও নেছার উদ্দীন স্কুলে উপস্থিত হয়ে বাদী,বিবাদী,প্রধান শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি,ও অন্যান্ন শিক্ষক শিক্ষিকা এবং স্থানীয় দুই ব্যক্তির নিকট থেকে লিখিত বক্তব্য নিয়েছেন। এবিষয়ে এটিও আফজালউর রহমান জানান দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী জসিম উদ্দীনের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা মোছাঃ নাসরিন আক্তার অভিযোগ দায়ের করায় ম্যানেজিং কমিটি মিটিং করে তাকে সাময়িক সাসপেন্ড করেছে।
উপজেলা শিক্ষা অফিসে অভিযোগ দায়ের ও দপ্তরীকে সাসপেন্ড করার ভিত্তিতে তদন্ত করা হচ্ছে এবং এর প্রতিবেদন রিপোর্ট জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর পাঠানো হবে।
উল্লেখ্য গত ২৫ জুলাই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা মোছাঃ-নাসরিন আক্তার ও তার পুত্র আবিদের উপর শারীরিক নির্যাতন করায় পরদিন ২৬ জুলাই শিক্ষিকা নাসরিন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এছাড়াও ঝিনাইদহ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার। মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অনুলিপি প্রনর করেছেন। এবিষয়ে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি জনাব কাউয়ুম আলী খাঁন জানান দপ্তরী জসিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে সাময়িক সাসপেন্ড করা হয়েছে।
অপর দিকে গ্রামবাসী রাজাকার পুত্র দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী জসিম উদ্দীনকে তার পদ থেকে অপসরনের দাবীতে বিদ্যালয়ের সামনে ঘন্টা ব্যাপি মানব বন্ধন করে। গ্রামবাসী জানান দপ্তরী কাম প্রহরী জসিমের বাবা আবু তালেব এবং আবু তালেবের বাবা মৃত মুনছোর আলী খাঁ তারা এলাকার চিহৃীত রাজাকার তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় অনেক ঘটনা রয়েছে। যা এলাকার অধিকাংশ মানুষ জানে। তারা এলাকার চিহৃিত রাজাকার হয়ে বর্তমান ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতি এবং ছেলে দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরী। এলাকাবাসীর দাবী একজন চিহৃীত রাজাকার পরিবারের পুত্র দপ্তরী কাম নৈশ প্রহরীর পদ থেকে অপসারন ও রাজাকার আবু তালেবকে ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতির পদ থেকে বহিস্কার করা এবং রাজাকারের পুত্র কি ভাবে স্কুলের দপ্তরীর কাম নৈশ প্রহরীর চাকুরী হয় এই দাবী নিয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার সহ শিক্ষা মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করছে।