বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ঢাকা ও সিলেটে

0
222

বার্তাবিডি ২৪ নিউজ : গত আসরের মতো এবারও বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ অনুষ্ঠিত হবে দুই ভেন্যুতে। এবার ঢাকার ভেন্যু ঠিক থাকলেও বদলে গেছে ঢাকার বাইরের ভেন্যু। যশোরের পরিবর্তে ভেন্যু হবে সিলেট। বৃহস্পতিবার বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন জানিয়েছেন, দুই ভেন্যুতে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ আয়োজনের কথা।

১ থেকে ১২ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের পঞ্চম আসর। দুই গ্রুপে দল থাকবে ৬টি। এবার দল নির্বাচনে একটু ভিন্ন কৌশল নিয়েছে বাফুফে। এশিয়ার ৫ অঞ্চল থেকে ৫ দল এবং বাংলাদেশ থাকবে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে। বৃহস্পতিবার টুর্নামেন্ট আয়োজনের দিকে বাফুফে এগিয়ে গেলো বড় এক ধাপ। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের স্বত্ব বিক্রি করা হয়েছে কে. স্পোর্টস নামের একটি প্রতিষ্ঠানের কাছে। ওই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিপত্রও সম্পন্ন করেছে বাফুফে।

প্রতি জানুয়ারিতে এ টুর্নামেন্টের ঘোষণা দিয়েও তা কার্যক্রর করতে পারেনি বাফুফে। টুর্নামেন্টের সর্বশেষ আসর বসেছিল ২০১৬ সালে। মাঝে এক বছরের বিরতি। এবার টুর্নামেন্ট হচ্ছে অক্টোবরে। কেন নিয়মিত আয়োজন হচ্ছে না এ টুর্নামেন্ট? বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের ব্যাখ্যা, ‘ফিফা ও এএফসির ব্যস্ত সূচির কারণে এখন টুর্নামেন্টের সময় বের করা কঠিন। এরপর আছে বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া প্রতিযোগিতা। এ সবের কারণেই নিয়মিত টুর্নামেন্ট আয়োজন করা সম্ভব হয় না।’

সূচি মেলাতে না পারার কারণেই এখন অনেক পুরনো টুর্নামেন্ট এখন আলোর মুখ দেখে না। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কাপ, মালয়েশিয়ার মারদেকা কাপ, ভারতের নেহরু কাপ এ কারণেই এখন এক প্রকার বন্ধ হয়ে গেছে উল্লেখ করে বাফুফে সভাপতি বলেন, ‘এসব কিছুর পেছনে কারণ, সূচি মেলাতে না পারা।’

কত দিনের চুক্তি বাফুফে ও কে.স্পোর্টসের? বিষয়টি পরিস্কার করে বাফুফে সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘এখন আমরা এক আসরের জন্য চুক্তি করলাম। তবে আমরা আগামীতে আবার নতুন চুক্তি করতে পারবো। যদি আমরা সফলভাবে টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারি।’

বুধবার পর্যন্ত দুটি অতিথি দলের নাম চূড়ান্ত হয়েছিল। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নেপাল, পশ্চিম এশিয়ার ফিলিস্তিন ও আসিয়ান অঞ্চলের ফিলিপাইনের বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে অংশ নেয়া নিশ্চিত বলে উল্লেখ করেন বাফুফে কর্মকর্তারা। সাউথ এশিয়া, আসিয়ান, মধ্য এশিয়া, পশ্চিম এশিয়া ও পূর্ব এশিয়া- এই ৫ অঞ্চল থেকে ৫টি অতিথি দল বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে নিশ্চিত করতে চায় বাফুফে। চুক্তি অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ফিফা কাউন্সিল সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ, পৃষ্ঠপোষক কে.স্পোর্টসের সিইও ফাহাদ করিম ও বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ উপস্থিত ছিলেন।

কে.স্পোর্টস টুর্নামেন্টের সব খরচ বহন করবে। প্রতিষ্ঠানটি বাফুফেকে প্রদান করবে ১ কোটি টাকা। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ পৃষ্ঠপোষকতাকে গর্ব উল্লেখ করে স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের সিইও বলেছেন, ‘আমরা বাফুফের কাছে কৃতজ্ঞ, আমাদের এ সুযোগটি করে দেয়ার জন্য। জাতির জনকের নামের টুর্নামেন্ট। এখানে টুর্নামেন্ট আয়োজন করে লাভ করাটা আমাদের উদ্দেশ্য নয়। আমাদের লক্ষ্য বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপকে এশিয়া অঞ্চলের শীর্ষ টুর্নামেন্ট হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা।’