খুলনায় চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও জনসচেতনতা কর্মসূচি

0
306
খুলনায় চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও জনসচেতনতা কর্মসূচি
খুলনায় চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও জনসচেতনতা কর্মসূচি

বি এম রাকিব হাসান, খুলনা ব্যুরো:
খুলনায় নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নের লক্ষ্যে চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও জনসচেতনতা বিষয়ক অবহিতকরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুরে মহানগরীর সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড চত্বরে এ কর্মসূচির আয়োজন করে খুলনা জেলা প্রশাসন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি করপোরেশনের (কেসিসি) মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুল খালেক বলেন, নগরীর যানচলাচলে শৃঙ্খলা আনতে শহরে যেখানে-সেখানে গাড়ি পার্কিং বন্ধ করতে হবে। পাশাপাশি শহরে চলাচলকারী ইজিবাইকগুলোকে সঠিক ব্যবস্থাপনায় আনতে হবে। পরিবহনের মালিক, শ্রমিক, জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন ও সচেতন ব্যক্তিদের সঙ্গে নিয়ে পরিবহন সেক্টরের অব্যবস্থাপনা দূর করা হবে।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যরা বলেন, দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে সড়ক মহাসড়কের ব্যবহার ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু সড়কের ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাচ্ছে না। তাই সড়ক ক্রমাগত অনিরাপদ হয়ে পড়ছে। পরিকল্পিত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে সড়ককে নিরাপদ করা যেতে পারে। সড়ক ব্যবহারকারীদের সচেতনতা বৃদ্ধি এক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে পারে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী কোনো চালক একনাগাড়ে পাঁচ ঘণ্টার বেশি মোটরযান চালাতে পারবে না। প্রতি তিনমাস অন্তর চালকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে তার সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে হবে। চালকদের জন্য পরিমিত বিশ্রাম ও ঘুম নিশ্চিত করাও একান্ত প্রয়োজন। চালকের আসনে বসে মোবাইল ফোন ব্যবহার, ট্রাফিক আইন ও রোড সাইন অমান্য করা এবং গাড়ি চালানের সময় কারও সঙ্গে কথা বলা থেকে চালককে বিরত থাকতে হবে। অধিকতর নিরাপত্তার জন্য সিট বেল্ট ব্যবহার করতে হবে ও বৈধ লাইসেন্সসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়মিত নবায়ন করে যানবাহনে সংরক্ষণ করতে হবে। মনে রাখতে হবে মুহূর্তের অমনযোগিতা অনেক বড় দুর্ঘটনার কারণ হয়ে জীবন ও সম্পদের ক্ষতি বয়ে আনে। সড়ক দুর্ঘটনার জন্য কেবল চালক একা দায়ী নয়, অনিরাপদ ও অপরিকল্পিত সড়ক এ ক্ষেত্রে প্রভাবক হিসেবে কাজ করে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার (এসপি) এসএম শফিউল্লাহ, সিভিল সার্জন ডা. এএসএম আব্দুর রাজ্জাক, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) খুলনা বিভাগের উপ-পরিচালক মো. জিয়াউর রহমান ও এডিসি ট্রাফিক মো. কামরুল ইসলাম।
খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্ব অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন মুক্তিযোদ্ধা আলমগীর কবির এবং মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন বিপ্লব। স্বাগত জানান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গোলাম মাঈনউদ্দিন হাসান।
অনুষ্ঠান শেষে সিভিল সার্জন দফতরের উদ্যোগে চালকদের দিনব্যাপী স্বাস্থ্য পরীক্ষার উদ্বোধন করা হয়।