ঝিকরগাছায় স্পোর্টস ক্লাবের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত

0
378

 

আফজাল হোসেন চাঁদ, ঝিকরগাছা প্রতিনিধি ॥ যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা মোড়ে অবস্থিত স্পোর্টস ক্লাবের আয়োজনে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে শুক্রবার রাতে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা, দোয়া ও এতিমদের মধ্যে খাদ্য বিতরণের কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অনুষ্ঠানে জেলা পরিষেদের সদস্য ও স্পোর্টস ক্লাবের সহ সভাপতি ইকবাল আহমেদ রবি’র সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা এবিএম কারুজ্জামান তোতা, স্পোর্টস ক্লাবের সহ সভাপতি একরামুল হক খোকন, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম সম্পাদক ফিরোজ জামান তুলি, জাফিরুল হক, রফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর হোসেন, জাগরণী সংসদের সাবেক সভাপতি মুনিরুল আলম মিশর, ঝিকরগাছা ক্রিকেট একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর কবীর হ্যাপী, তরুণ চক্রের উপদেষ্টা আলিমুল মৃধা, রঘুনাথনগর তরুণ সংঘ স্পোর্টস ক্লাবের সভাপতি হাসানুর ফয়েজ মজনু, স্পোর্টস ক্লাবের প্রচার সম্পাদক শাকিল আহমেদ মিলন, দপ্তর সম্পাদক বুলবুল আহমেদ, অর্থ সম্পাদক আনছার আলী, সহ অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মাধব কুমার সরকার, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মানিক উদ্দীন খান, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম বাঙ্গালী, সদস্য সাংবাদিক আফজাল হোসেন চাঁদ, প্রিন্স আহমেদ, রবিউল ইসলাম, হাসান আলী, সাজ্জাদুর রহমান সাজু, রূপসী বাংলা ক্রিড়া চক্রের সদস্য শাহিন হোসেন, ফারুক হোসেন, মিজানুর রহমান, জাতীয় শ্রমিকলীগের উপজেলা শাখার প্রচার সম্পাদক মাহাবুব হাসান বরি, ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম খোকন প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, স্পোর্টস ক্লাবের মিডিয়া বিষয়ক সম্পাদক আবু সাঈদ মিলন।

 

ঝিকরগাছায় রাষ্ট্র বিরোধী বিষ্ফোরক সহ আটক ১৫

আফজাল হোসেন চাঁদ, ঝিকরগাছা প্রতিনিধি ॥ যশোরের ঝিকরগাছায় থানাধীন লাউজানী বাজারের এনএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পিছনে জনৈক মাহাবুব’র ‘স’ মিলের মধ্যে বিভিন্ন এলাকার থেকে আগত জামাত-বিএনপির সমর্থিত ৬০/৭০ জন নেতা-কর্মীরা রাষ্ট্র বিরোধী নাশকতা মূলক কর্মকান্ড পরিচালনার উদ্দেশ্যে শনিবার রাত্র ৩টা সময় গোপন বৈঠকে মিলিত হয়। ঘটনা সম্পর্কে থানার পুলিশ জানতে পেরে রাত্র ৩টা ১৫ মিনিটের সময় অভিযান পরিচালনা করায় ঘটনাস্থল থেকে বিষ্ফোরক সহ ১৫জন কে আটক করে।
থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ কামাল হোসেনের সূত্রে জানা যায়, আমরা গোপন সংবাদের উপর ভিত্তি করে শনিবার রাত্র ৩টা ১৫ মিনিটের সময় অভিযান পরিচালনা করে ঘটনা স্থলে পূর্বে থেকে উৎপেতে থাকা জামাত-বিএনপির সমর্থিত ৬০/৭০ জন নেতা-কর্মীরা আমাদের উদ্দেশ্য করে পরপর দু’টি হাত বোমা বিষ্ফোরণ করে পালানোর চেষ্টা করে। আমরা ঘটনার সঙ্গে সংযুক্ত ১৫জন আসামীকে গ্রেফতার করি। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, নওদাপাড়া গ্রামের আঃ আলিমের ছেলে আল-আমিন (২২), লাউজানী গ্রামের মৃত আঃ গনি মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩০), বাচ্চু মিয়ার ছেলে আলম হোসেন (৩৫), মৃত আঃ লতিফের ছেলে ইমদাদুল হক রনি (২৬), মৃত আবু হানিফের চেলে আবুল কালাম আজাদ (২৫), আঃ রশিদের ছেলে আঃ সামাদ, আমানুল্লাহের ছেলে সেলিম হোসেন, মৃত জহর আলী খা’র ছেলে লুৎফর রহমান (৫০), আবু তালেব’র ছেলে আঃ রহিম (৪৫), মৃত কুরবান আলীর ছেলে ইয়ানুর রহমান (২৯), ইসমাইল হোসেনর ছেলে মিঠু (২০), আরশাদ আলীর ছেলে সাইদুর ইসলাম (৩৫), জালাল হোসেনের ছেলে রুবেল হোসেন (৩০), হোসেন আলীর ছেলে আলমগীর হোসেন (৩২) এবং মল্লিকপুর গ্রামের সেলিম খা’র ছেলে সাগর (২০)। গ্রেফতারকৃত আসামী সহ ঘটনাস্থল তল্লাশী করে ঘটনাস্থল হইতে নাশকতার উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত ০৩টি পেট্রোল বোমা, ০২টি অবিষ্ফোরিত বোমার অংশ বিশেষ উদ্ধার করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারের পরে জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামীরা বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাধারণ জনগণ যাহাতে সুষ্ঠ ভাবে তাদেও ভোটাধিকার প্রয়োগ করিতে না পাওে এবং সংসদ নির্বাচনকে বানচাল করার উদ্দেশ্যে তারা মিলিত হয়। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃতদের নামে ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫(৩)/২৫-ডি তৎসহ বিষ্ফোরক উপদানাবলী আইন ১৯০৮ এর ধারায় থানায় মামলা হয়েছে। মামলা নং ০১। তাং ০১/০৯/২০১৮ইং। আটককৃতদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।