মহেশপুরে তিন ব্যক্তিকে ছুরি মেরে রক্তাক্ত জখম , থানায় পাল্টা পাল্টি মামলা

0
469

” শহিদুল ইসলাম মহেশপুর থেকে ”

গত ২৬ আগষ্ট রাত্রে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার গুড়দাহ গ্রামে রাতের আধারে তিন ব্যক্তিকে ছুরি মেরে রক্তাক্ত জখম করেছে প্রতিবেশী নাসির নামের এক যুবক।

এমসয় প্রতিবেশীরা ছুটে এসে পল্লী চিকিৎসক শরিফুল ইসলাম,তার ভাতিজা স্বপন ও রতন সহ তিন ব্যক্তিকে উদ্ধার করে প্রথমে জীবননগর ও পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। আহত শরিফুলে পেটের ক্ষত স্থানে ১৬ টি ভাতিজা স্বপনের পায়ে ১৬ টি এবং রতনের হাতে ২৩ টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। ৪ দিন চিকিৎসা শেষে গত ২৯ আগষ্ট বাড়ি ফিরে অসহায় জীবন যাপন করছে শরিফুল গংয়েরা ।

অপর দিকে ছুরি মারা যুবক নাসির প্রতিবেশীদের আসতে দেখে পালাতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে নিজের ভোজালী ছুরিতে পা কেটে রক্তাক্ত জখম হয়ে সেও হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে এসেছে।

এবিষয়ে আহত শরিফুল ডাক্তার জানান ঘটনার রাত্রে প্রতিবেশী নাসির ভোজালী ছুরি হাতে নিয়ে ছোট ভাই প্রবাসী আশরাফুল এর বাড়ীর পিছনে দাড়িয়ে থাকতে দেখে কথা কাটা কাটির এক পর্য়ায়ে নাসির ভোজালী ছুরি মেরে তাদেরকে আহত করে পালিয়ে যায়। পালাতে গিয়ে পা পিছলে পড়ে তার হাতে থাকা ভোজালীতে তার পা কেটে যায়। নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক অনেকেই জানান নাসির নামের ছেলেটি দুরদর্শ প্রকৃতির মানুষ তার বিরুদ্ধে অনেক এলাকায় বদনাম রয়েছে যা তদন্ত করলে প্রমান পাওয়া যাবে।

এ ঘটনায় দুই পক্ষই মহেশপুর থানায় পাল্টা পাল্টি মামলা করলে পুলিশ স্বর-জমিন তদন্ত করে ঘটনটাস্থল থেকে নাসিরের হাতের সেই রক্ত মাখা ভোজালী ছুরিটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গেছে । আহতরা সবাই নিজ বাড়ি শুয়ে বসে চিকিৎসা নিচ্ছে। মামলার পরও পুলিশের ভুমিকা নীরব থাকায় বিষয়টি নিয়ে দু-পক্ষের মধ্যেই আতংক বিরাজ করছে।
এ ব্যাপারে নাসিরের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।