জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ বিল পাস

0
206

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা : জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ পরিচালনার দায়িত্ব সাধারণ পরিষদ ও কার্যনির্বাহী পরিষদের উপর সমানভাবে ন্যস্ত রেখে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ বিল-২০১৮ পাস হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) জাতীয় সংসদে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদার বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন। এর আগে বিলের নানা অসঙ্গতি নিয়ে সংসদে তুলে ধরেন বিরোধী দলের সদস্যরা। তবে বিলের ওপর আনা সংশোধনী, জনমত যাচাই-বাচাই কমিটিতে প্রেরণের প্রস্তাব কণ্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়।

বিভিন্ন ক্রীড়া সংস্থাকে স্বীকৃতি ও সনদ প্রদানসহ বিলে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের কার্যাবলি বিবৃত হয়েছে। দুই কমিটি এ পরিষদ পরিচালনা করবে। সাধারণ পরিষদ ক্রীড়ার উন্নয়ন ও প্রকল্প বাস্তবায়নে নির্বাহী কমিটিকে পরামর্শ দিবেন। তবে উভয় কমিটির সভাপতি, সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন উক্ত মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী। উভয় কমিটির সাচিবিক দায়িত্ব পালন করবেন পরিষদের নিয়োজিত সচিব। সাধারণ পরিষদে ১১ মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ ৩০ ক্যাটাগরিতে শতাধিক সদস্যকে অন্তর্ভুক্তির বিধান রাখা হয়েছে। সাধারণ পরিষদ দুই বৎসরে একবার সভায় মিলিত হবে। তবে প্রতি বছর অডিট করাবে।

নির্বাহী কমিটি প্রতি তিন মাস পর সভা করবে। বিলের নানা অসঙ্গতি নিয়ে সংসদে তুলে ধরেন বিরোধী দলের সদস্যরা।

বিলের উদ্দেশ্য ও কারণ সম্বলিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশের ক্রীড়া খাতের উন্নয়ন, ক্রীড়া কর্মকাণ্ডের সমন্বয় এবং আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের উদ্দেশ্যে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে ৯ মার্চ ২০১১ পর্যন্ত সংশোধিত বিদ্যমান ন্যাশনাল স্পোর্টস কাউন্সিল অ্যাক্ট ১৯৭৪ রহিত করে সংশোধিত আকারে এ আইন প্রণয়ণ করা হয়।