এমপিপুত্র রনির জোড়া খুন মামলার রায় ফের পিছিয়েছে

0
373

বার্তাবিডিডেস্ক নিউজ:বার্তাবিডিডেস্ক নিউজ:

রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে জোড়া খুনের মামলায় সরকার দলীয় এমপি পিনু খানের ছেলে বখতিয়ার আলম রনির বিরুদ্ধে দায়ের করা হত্যা মামলার রায় ফের পিছিয়েছে আদালত। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ মো. মঞ্জুরুল ঈমাম এ আদেশ দেন

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি মাকসুদুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আজ রায় ঘোষণার দিন ধার্য করা হলেও এ মামলায় তদন্ত কর্মকর্তার আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ সাক্ষীর সাক্ষ্য নেওয়া বাদ গেছে। সেসব সাক্ষী হাজির করার জন্য আদালত নতুন করে তদন্ত কর্মকর্তাকে আদেশ দেবেন। এ কারণে আজ মামলার রায় হচ্ছে না।

গত ৮ মে ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলাটির রায় হওয়ার কথা থাকলেও আসামিপক্ষের আবেদনে তা বদলি করা হয় দ্বিতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতে। নতুন আদালতের বিচারক মঞ্জুরুল ঈমাম অধিকতর যুক্তিতর্ক ও শুনানির প্রয়োজন বোধ করায় রায় পিছিয়ে যায়। এর পরে আজ পুনরায় রায়ের দিন নির্ধারণ করা হলে আবারও তা পেছানো হলো।

২০১৫ সালের ১৩ এপ্রিল রাত পৌনে ২টার দিকে রাজধানীর নিউ ইস্কাটন রোডে একটি কালো রঙের প্রাডো গাড়ি থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়লে তাতে অটোরিকশাচালক ইয়াকুব আলী ও রিকশাচালক আবদুল হাকিম আহত হন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান। ওই ঘটনায় নিহত হাকিমের মা মনোয়ারা বেগম অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে রমনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পরে ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৩০ মে বখতিয়ার আলম রনিকে এলিফ্যান্ট রোডের বাসা থেকে আটক করে ডিবি পুলিশ। তিন দফায় ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয় তাঁকে। রিমান্ড শেষে রনিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। এর পর থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

গত বছরের ২৯ অক্টোবর রনি আত্মপক্ষ শুনানিতে নিজেকে নির্দোষ দাবি করে আদালতে বক্তব্য দিয়েছেন। গত বছরের ১৮ অক্টোবর এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। মামলাটিতে অভিযোগপত্রভুক্ত ৩৭ জন সাক্ষীর মধ্যে ২৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। এ মামলায় ২০১৫ সালের ২১ জুলাই ডিবি পুলিশের এসআই দীপক কুমার দাস বখতিয়ার আলম রনির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

গত বছর ৬ মার্চ মামলাটিতে এ আসামির অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে অভিযোগ গঠন করেন আদালত।