যুক্তরাষ্ট্রে চার্চে হামলা, নিহত ১

0
24

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্রে একটি সুপারমার্কেটে বন্দুক হামলায় ১০ জন নিহতের একদিন পর এবার চার্চে হামলার ঘটনা ঘটেছে।

দেশটির ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের দক্ষিণাঞ্চলের লুঙ্গা উডস এলাকায় একটি চার্চে বন্দুক হামলায় একজন নিহত এবং আরও পাঁচজন গুরুতর আহত হয়েছেন। খবর আরব নিউজের।

পুলিশ হামলাকারীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে। স্থানীয় সময় রোববার দুপুর দেড়টার দিকে জেনেভা প্রেসবিটারিয়ান চার্চে ওই বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়ে, হামলার ঘটনায় ৬০ বছরের এক বৃদ্ধকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গির্জাগামী লোকজন সাহসের সঙ্গে এগিয়ে এসে হামলাকারীকে না থামালে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়ত বলে জানায় পুলিশ।

এর একদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে একটি সুপারমার্কেটে বন্দুক হামলায় অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন।

স্থানীয় সময় শনিবার বিকালে নিউইয়র্কের বাফেলো এলাকায় এ বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটে।পুলিশ বলছে, ওই ঘটনায় তারা ১৮ বছর বয়সি শ্বেতাঙ্গ হামলাকারীকে আটক করেছে। ঘটনাটিকে তদন্ত করা হচ্ছে।

বাফেলোর পুলিশ কমিশনার জোসেফ গ্রামাগলিয়া বলেন, গুলিবিদ্ধ ১৩ জনের মধ্যে ১১ জনই কৃষ্ণাঙ্গ।

ঘটনাটিকে জঘন্যতম বলে আখ্যায়িত করেছেন এরি কাউন্টি শেরিফ জন গার্সিয়া। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আমাদের সম্প্রদায়ের বাইরের কারও কাছ থেকে জাতিগতভাবে ঘৃণা বিদ্বেষে উদ্বুদ্ধ হয়ে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।’

পুলিশ জানায়, সন্দেহভাজন ওই যুবক শনিবার বিকালে ব্যস্ত সুপারমার্কেটে রাইফেল হাতে প্রবেশ করে গুলি চালানোর আগে হামলা সরাসরি প্রচার করার জন্য একটি ক্যামেরা ব্যবহার করে।

অনলাইনে হামলার বিষয়ে কোনো বার্তা প্রচার করেছে কিনা তাও অনুসন্ধান করা হচ্ছে। হামলার সময় ওই যুবক কালো হেলমেট পরিহিত ছিলেন। তিনি উচ্চ ক্ষমতার একটি রাইফেল দিয়ে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করতে থাকেন।

শহরটির মেয়র বাইরন ব্রাউন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তিদের প্রতি গভীর শোক এবং তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন তিনি।