মেসিই পথ দেখালেন আর্জেন্টিনাকে, বিশ্বকাপ হলো আরো আকর্ষণীয়

0
16

ডেস্ক নিউজ:মেট্রোরেলের বগিতে ম্যারাডোনা-মেসির ছবি সংবলিত বড় পোস্টার টানিয়ে কোরাসে গান গাইতে লাগলেন আর্জেন্টিনার সমর্থকরা। পারলে মেট্রোরেলের বগির সেই অংশের ছাদ ভেদ করে আকাশ ছুঁতে যাওয়ার চেষ্টা! আবার কেউবা এক অংশকে ‘ড্রাম’ বানিয়ে উল্লাসে ফেটে পড়ছে। এমন উল্লাস-আনন্দ সবকিছুই ছিলো নকআউট পর্বের ম্যাচকে ঘিরে। আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে ম্যাচের পুরো সময়জুড়ে ছিলো এমন গগনবিদারী উচ্ছ্বাস। হাজারও সমর্থকদের এবারো হতাশ করেনি দুইবারের চ্যাম্পিয়ন দলটি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রত্যাশিত জয় পেয়ে কাতার বিশ্বকাপকে আরো আকর্ষণীয় করে রেখেছে।

আর এমন জয়ের পিছনে বড় তারকা লিওনেল মেসির অবদান যে কম নয়। পোল্যান্ডের বিপক্ষে পেনাল্টি মিস করে কিছুটা চাপে ছিলেন। নকআউট পর্বে এসে পেছনে আর ফিরে তাকাতে হয়নি। সকারুরা যেভাবে রক্ষণ জমাট করে গোল হতে দিচ্ছিলো না। ঠিক সে সময় জ্বলে উঠলেন ৩৫ বছর বয়সী তারকা। বক্সে বল পেয়ে নিজের মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন।

ম্যাচের ৩৫ মিনিটের মেসির গোলে আলোর দিশা পায় স্কালোনির দল। তিনিই পথ দেখালেন দলকে। এছাড়া বেশ কয়েক বার বল পায়ে ঝলক দেখালেও প্রতিপক্ষের জাল স্পর্শ করা হয়নি। তবে তাতে কি! মেসির গোলের পর বিরতির পর আলভারেজ সুযোগ পেয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করলেন। দুই গোলে পিছিয়ে থেকে শেষের দিকে সকারুরা আলবিসেলেস্তেদের একটু চাপে রাখে। একটি গোলও শোধ দেয়।

তবে আর্জেন্টিনার জয় ছিনিয়ে নিতে পারেনি। সেই বিদগ্ধ সমর্থকরা নেচে গেয়ে দলকে শেষ পর্যন্ত সমর্থন দিয়ে গেছেন। মেসি ও তার দলের কোয়ার্টার ফাইনাল যে নিশ্চিত হয়েছে। আর মেসি মাঠে থাকা মানে অন্য কিছু। একই সঙ্গে রেকর্ড ও মাইলফলক গড়ে নিজেকে অনন্য জায়গায় নিয়ে গেছেন। ১০০০ ম্যাচ মাইলফলকের পাশাপাশি বিশ্বকাপে প্রয়াত ম্যারাডোনার ৮ গোলকে ছাড়িয়ে গেলেন।

আরো একটি বিষয় আছে। আগের চার বিশ্বকাপে নকআউট পর্বে গোল পাওয়া হয়নি। এবার তা পেয়ে যেন সেই আফসোসটা ঘুচলো! নিজের জায়গায় দাঁড়িয়ে অনেকটা হেটে হেটে খেলে সুযোগ সন্ধানীর মতো বল পায়ে এলেই ভয়ংকর হয়ে উঠেন। মেসির মাঠে থাকা মানেই বাড়তি কিছু। তাইতো যোগ করা সময়ে আর্জেন্টিনার মুহুর্মুহু আক্রমণে মেসির গোল ব্যবধান বাড়ানোর চেষ্টা ছিল দেখার মতো।

মাঠে এমন পারফরম্যান্সের পর সমর্থকরা বেজায় খুশি। স্টেডিয়াম ছাড়তে ছাড়তে একজন তো বলেই গেলেন, মেসি গোল পেয়েছে। দল জিতেছে। এরচেয়ে আনন্দের খবর আর কী হতে পারে। মনে করেছিলাম আরও ব্যবধানে জয় পাবে দল। তারপরও এমন পারফরম্যান্সে খুশি।

কোয়ার্টার ফাইনালে আরো একটি পরীক্ষা দেয়ার অপেক্ষায় মেসি ও তার দল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here