পুঠিয়ায় ছিনতাইয়ের পর প্রতিবন্ধী স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ

0
35

স্টাফ রিপোর্টার, পুঠিয়া (রাজশাহী) ঃ পুঠিয়া ছিনতাইয়ের পর প্রতিবন্ধী স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে দুর্বৃত্তরা।

গতকাল বুধবার (১৩ এপ্রিল) রাত্রি ৮টার সময় এ ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে। এসময় ছিনতাইকারীরা তার মোবাইল ফোন ও টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। পরে স্থানীরা তাকে উদ্ধার করে পুঠিয়া থানায় নিয়ে যায়।

ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী স্কুল ছাত্রী রাজশাহী জেলার বাগমার উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার কোয়ালিপাড়া এলাকায় তার বাড়ি এবং জামগ্রাম টেকটিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। তার এক পায়ে সমস্যা থাকায় সে খুড়িয়ে খুড়িয়ে হাটে।

স্থানীয়রা জানান, মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে বেগার মোড়ে আসে। এ সম স্থানীয়রা বিষয়টি জানতে চাইলে সে ছিনতাই ও ধর্ষণের ঘটনাটি জানায়। জানাগেছে, সকালে কাচুপাড়া এক আতœীয়ের বাড়ি বেড়াতে যায় ধর্ষণের শিকার মেয়েটি। ইফতারের পর একটি ব্যাটারি চালিত রিকশা ভ্যান যোগে সে বাড়ি ফিরছিলো।

তার ভ্যানে আরো দুইজন ছিলো। এসময় কাচুপাড়া মাঠের মধ্যে ৫ থেকে ৬ জন ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদের ভ্যানের গতি রোধ করে। পরে তারা সবার কাছ থেকে টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এসময় অস্ত্রেও মুখে মেয়েটিকে তুলে নিয়ে পাশের একটি কালাবাগানে ধর্ষণ করে তারা। ধষণের পর মেয়েটি রেখে তারা পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ সোহরাওয়ার্দী হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে মেয়েটি থানায় আসে। তার মেডিকেল পরীক্ষার জন্য রামেক হাসপাতালে পাঠানো হবে এবং অভিযুক্তদের শনাক্ত করে আটকের বিষয়ে অভিযান পরিচানা করা হবে বলে এ কর্মকর্তা জানান।